মুসলিমরা যখন মিশরের আলেক্সান্দ্রিয়া জয় করতে যায় তখন সেখানে গিয়ে দেখে মিশরের সেনাবাহিনী সংখ্যায় মুসলিমদের চেয়ে অনেক বেশী। মুসলিমরা ছিলেন মাত্র ৪০০০। তাই আমর বিন আস (রা) খলিফা ঊমার (রা) কে চিঠি দিয়ে আরও সৈন্য চেয়ে পাঠালেন। ঊমার (রা) ৪০০০ সৈন্য ঠিক করলেন এবং এই ৪০০০ এর সাথে আরও ৪ জনকে যুক্ত করে মোট ৪০০৪ জনকে পাঠালেন। তিনি আমর বিন আস(রা) কে চিঠি লিখে বললেন, “আমি ৪০০০ সৈন্য পাঠালাম আর সাথে দিলাম ৪ জন। এই ৪ জনের প্রত্যেকে ১০০০ জনের সমান। অর্থাৎ আমি মোট ৮০০০ সৈন্য পাঠালাম। তোমার সাথে আছে ৪০০০; ১২০০০ মুসলিম সেনাবাহিনীকে পরাজিত করার ক্ষমতা অবিশ্বাসীদের নেই।” এই ৪ জন হলেন- যুবায়ের বিন আওয়াম, মিকদাদ বিন আসওয়াদ, উবাদাহ বিন সামিত এবং মাসলামাহ বিন মাখলাদ (রাদিয়াল্লাহু আনহুম)।

সেনাবাহিনীর নেতৃত্ব দেওয়া হল উবাদাহ বিন সামিত (রা) কে। ঘটনা ঘটল তাঁকে নিয়েই। যুদ্ধের মাঝেই তিনি জঙ্গলে তাহাজ্জুদ পড়ছিলেন। এমন সময় ২০ জন মিশরীয় ঘোড়সওয়ার একসাথে আসে তাকে হত্যা করার জন্য। তারা ভাবল, উবাদাহ যখন সালাতে নিমগ্ন হয়ে যাবে তখন তাকে হত্যা করবে। তিনি সালাত শুরু করলে তারা একযোগে ঝাঁপিয়ে পড়ল তাঁকে হত্যা করার জন্য। উবাদাহ বিন সামিত (রা) এর সাথে তাঁর তরবারি ছিল। তিনি মুহূর্তের মধ্যে ঘুরে দাঁড়িয়ে ১৬ জন ঘোড়সওয়ারকে সেখানেই ফেলে দেন। বাকি ৪ জন জীবনের ভয়ে পালিয়ে যায়। তিনি সাথে সাথেই আবার “আল্লাহু আকবার” বলে সালাত শুরু করে দেন যেন কিছুই হয়নি।

২৫ নভেম্বর, ২০১৪